সরাসরি প্রধান সামগ্রীতে চলে যান

একটি মৃত জ্যা


কল্পনা করা যাক একটি বিচার ধর্মী সভাকক্ষ, মাঝরাতের কোনো এক সময়। দিনে এ কাজ করার যথেষ্ট ঝামেলা আছে, তাই। সভা সাজানো হয়েছে কাঠের পালিশ করা বেঞ্চে, তারই মধ্যে মোটা পুরু গদি আঁটা'য় সরকার বাহাদুর নিজে। হাতে একখানি সুদৃঢ় ভ্রমর। যে শাস্তি পাবে তার ওপর এটা নিক্ষেপে ভার

নদীর জল দেহ ব্যবসার সব ভারে। কিভাবে এই সত্যকে খাঁটি মানবেন। নদীকে জানতে চাওয়া বা তার জল বা যৌগ! পরিহিতা এক নারী এখন এই সভাকক্ষে। সমস্ত আশ্রয় তার নধর তন্নশ্রী উপচে জল, জলাধার বৃন্তবাসী শৈশব! আপনি কি অসুস্থ বোধ করছেন? বিচারক বাড়ানো রুমালে বার বার আড়ালে রাখা! এখানে হত্যা মামলায় আসামী যে, তাকে জানতে চাওয়া হল,
পূর্ণায়ব চাঁদের ঘরে দ্বিবিচারী, মা ঘর ছাড়লেন, দেহ হতে পসারিণী চরিত্র। একটু কি ছুঁতে পারি, হাতে?

বাকিটা অদৃশ্যমান। চোখ ঘুমে বোজা, চর্চা। পেরেকে কফিন পোঁতার গন্ধ। দেহটি খ রীয় ছিল বা! আ চার
নদী জল ভাসাম্য শৌ বিলাসের চাঁদ, স্তনে


                   ।।অহনা সরকার।।
                       #অক্টোবর'

মন্তব্যসমূহ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন